আজ ১৯শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩রা জুলাই, ২০২০ ইং

পরিবেশগত ভারসাম্যের জন্য চাই বৃক্ষরোপণ!

দেওয়ান মো. ইকবাল, সময়ের বাতায়ন: 

পরিবেশ মানবজীবনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, পরিবেশ মানুষের বিকাশকে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করে। ভালো পরিবেশ ভালো মানুষ তৈরি করে। খারাপ পরিবেশ খারাপ মানুষ তৈরি করে। পৃথিবীতে জীবনের আস্তিত্বের জন্য প্রথম ও প্রধান পূর্বশর্ত হচ্ছে সুস্থ ও প্রশান্ত পরিবেশ। কিন্তু নানাবিধ কারণে পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। বেঁচে থাকার জন্য যে সুস্থতার প্রয়োজন পরিবেশ ক্রমেই তা হারিয়ে ফেলেছে। আর পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করার জন্য প্রয়োজন বৃক্ষ।

এ উদ্দেশ্যেই সম্প্রতি বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ পালন করা হয়। বৃক্ষরোপণের প্রয়োজন আছে। আমরা জানি প্রাকৃতিক ভারসাম্যের জন্য দেশের ২৫ শতাংশ বনভূমি আবশ্যক, কিন্তু বাংলাদেশে বর্তমানে আছে মাত্র ১৩ শতাংশ বনভূমি। আমাদের অস্তিত্ব রক্ষার জন্য আমাদের বনায়ন বৃদ্ধি করা উচিত। নইলে আমরা গ্রীন হাউজ এফেক্ট এর করাল গ্রাস থেকে নিজেদেরকে করতে পারবো না।

বৈজ্ঞানিকদের সমীক্ষায় জানা গেছে যে, গ্রীন হাউসের প্রভাবে বাংলাদেশে ১ মিটার সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি পেতে পারে, আর তাতে উপকূলীয় প্রায় ২২,৮৮৯ বর্গকিলোমিটার বাংলাদেশ পানির নিচে যেতে পারে। তাছাড়া আমাদের প্রাণীজগতের বেঁচে থাকার জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান হলো অক্সিজেন। অক্সিজেন আমরা সাধারণত পেয়ে থাকি বৃক্ষ বা বনভূমি থেকে। আমাদের বাংলাদেশের মানুষের জন্য যে পরিমাণ অক্সিজেন প্রয়োজন, সে পরিমাণ অক্সিজেন মেটানোর মতো বনভূমি বাংলাদেশে নেই। এমতাবস্থায় আমাদের বনভূমি বা উদ্ভিদ থেকে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন পাওয়ার সম্ভাবনা নেই। ফলে বনভূমি বাড়ানো একান্ত প্রয়োজন।

মোটকথা বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিকে সফল করার জন্য আমাদের প্রত্যেকের প্রয়োজন প্রতি বছর গাছ লাগানো এবং গাছকে রক্ষণাবেক্ষণ করা। ফলে গাছ থেকে আমাদের প্রয়োজন মেটাতে পারবো, আমারা গ্রীন হাউস এফেক্টের হাত থেকে নিজেদেরকে রক্ষা করতে এবং পরিবেশগত ভারসাম্য ও প্রাকৃতিক অবক্ষয় থেকে মাতৃভূমিকে রক্ষা করতে পারব।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরো সংবাদ