আজ ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

প্রেমের টানে এসে দক্ষিণ আফ্রিকায় লাশ হলেন বাংলাদেশী মেয়ে শান্তা। স্বামী সুমন পলাতক!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

দক্ষিণ আফ্রিকার পুমালাঙ্গা প্রভিন্সের লাইডেনবার্গে এক বাংলাদেশী নারী নিজ স্বামীর হাতে খু’ন হয়েছেন। নিহত নারীর নাম শান্তা ইসলাম। দেশের বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর থানার থলপাড়া গ্রামে। আর তার ঘাতক স্বামীর নাম সুমন আহমেদ; একই জেলার বাসাইল থানার কাঞ্চনপুর গ্রামে বাড়ি।

নিহত শান্তার দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী এক আত্মীয় জানান, শান্তা তার বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান। সুমন তাদের দূরসম্পর্কের আত্মীয়, দেশে থাকা অবস্থায় তাদের পূর্ব পরিচয় ছিল। সুমন কেপটাউনে এসে চাকুরি করলেও পরবর্তীতে পুমালাঙ্গা এসে ব্যবসা শুরু করে।

নিহত শান্তার সাথে সুমনের দীর্ঘ দিনের পরিচয় ও প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এক পর্যায়ে শান্তা নিজ খরচে দেশ থেকে দক্ষিণ আফ্রিকা আসে। এখানে এসে তাদের বিয়ে হয় বলে স্থানীয়রা জানান।

কিন্তু শান্তা দক্ষিণ আফ্রিকা আসার কিছুদিন পর থেকেই সুমন তাকে মানসিক এবং শারীরিকভাবে নির্যা’তন করতে থাকে। নির্যা’তনে অতিষ্ঠ হয়ে শান্তা তার বাবার দক্ষিণ আফ্রিকায় অবস্থানরত আত্মীয়-স্বজনের কাছে ফিরে যেতে চান। এই হিসাবে আজ (২৮ আগস্ট) সকালে তার এক আত্মীয় শান্তাকে নিয়ে আসার জন্য লাইডেনবার্গে গেলে সেখানে ভেতর থেকে বাসা তালাবদ্ধ দেখতে পান। পরে পুলিশের সহযোগিতায় তালা ভেঙে নিহত শান্তার মরদেহ ঘরের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখা যায়। ঘটনার পর থেকে স্বামী সুমন পলাতক রয়েছে। ঘাতক সুমনের সন্ধান পেতে সকল প্রবাসীদের সহযোগিতা চেয়েছেন নিহত শান্তার আত্মীয় স্বজনরা।


Deprecated: Theme without comments.php is deprecated since version 3.0.0 with no alternative available. Please include a comments.php template in your theme. in /home/somoyerb/public_html/wp-includes/functions.php on line 5059

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরো সংবাদ