আজ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শ্রীপুরে ভাগ্নীর পাত্র দেখে ফেরার পথে গণধর্ষণের শিকার নারী!

মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, গাজীপুরঃ

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় ভাগ্নীর জন্যে পাত্র দেখে বাড়ি ফেরার পথে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক নারী। এ ঘটনার পরপরই পুলিশ অভিযুক্ত দু’জনকে আটক করেছে।

শনিবার ( ১৬ অক্টোবর ) সকালে ভুক্তভোগী নারী তিনজনকে অভিযুক্ত করে শ্রীপুর থানায় মামলা করেছেন। মামলায় অজ্ঞাতনামা আরও একজনকে আসামি করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন উপজেলার শিমুলতলী গ্রামের মরহুম নুরুল ইসলামের ছেলে কামরুজ্জামান ( ৪০ ) ও ধামলাই গ্রামের আবুল কালামের ছেলে মোঃ গোলাপ ( ৩৩ )।

শ্রীপুর থানা পুলিশ জানায়, ভুক্তভোগী নারী ও তার বান্ধবী ময়মনসিংহের ত্রিশাল এলাকায় একটি বিউটি পার্লারে কাজ করেন। ভুক্তভোগী নারীর সঙ্গে শ্রীপুরের এক যুবকের আট মাস আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।
গতশুক্রবার ( ১৫ অক্টোবর ) সন্ধ্যায় ভুক্তভোগীর ভাগ্নীর জন্য পাত্র দেখতে বান্ধবী ও প্রেমিককে নিয়ে শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ এলাকার বেলদিয়া গ্রামে আসেন। সেখানকার আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে রাত ১০ টায় কাওরাইদ বাজার থেকে সিএনজি চালিত অটোরিক্সা করে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। জৈনাবাজার – কাওরাইদ সড়কের বলদীঘাট বাজার এলাকায় পৌঁছালে অভিযুক্তরা তাদের গতিরোধ করে। পরে তাদের জোর করে বদলীঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নির্মাণাধীন ভবনের একটি কক্ষে নিয়ে একে অপরের সহযোগিতায় ওই নারীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে।
তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে অভিযুক্তরা তাদের সিএনজি স্ট্যান্ডের দিকে পাঠিয়ে দেয়।
এ সময় বাজারে উপস্থিত শ্রীপুর থানার টহল পুলিশকে ঘটনার বিস্তারিত জানালে পুলিশ দ্রুত অভিযান চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে কামরুজ্জামান ও গোলাপকে আটক করে।
শ্রীপুর থানার পরিদর্শক ( তদন্ত ) গোলাম সারোয়ার জানান, ভুক্তভোগী নারীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আটক দুজনকে পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে । অজ্ঞাতনামা আসামিকে আটকে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরো সংবাদ