আজ ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

প্রেমিকাকে গলা কেটে হত্যার পর প্রেমিক নিজের পেটে ছুরিকাঘাত করে আত্মহত্যা!

মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, গাজীপুরঃ

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলায় প্রেমিকাকে গলা কেটে হত্যার পর প্রেমিক নিজের পেটে ছুরিকাঘাত করে আত্মহত্যা করে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার ( ৬ অক্টোবর ) দিবাগত রাত ১০ টার দিকে ওই প্রেমিক যুবকের বাড়ি থেকে নিহত দুজনের মরদেহ উদ্ধার করে থানাপুলিশ।

নিহতরা হলো, কালীগঞ্জ উপজেলার বক্তারপুর ইউনিয়নের সাতানীপাড়া গ্রামের মৃত সমর গমেজের ছেলে হৃদয় গমেজ (২৫) এবং একই উপজেলার বান্দাখোলা গ্রামের স্বপন রোজারিও’র মেয়ে ইভানা রোজারিও (২২)। এদের মধ্যে হৃদয় ব্র্যাক এনজিওতে চাকুরি করতো এবং ইভানা নার্সিংয়ের শিক্ষার্থী ছিলো।

কালীগঞ্জ থানার উপ – পরিদর্শক ( এসআই ) আব্দুস সালাম জানান, হৃদয় ও ইভানার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। বুধবার সকালে হৃদয়কে বাড়ি রেখে তার মা ও চাচা জমির দলিল করতে কালীগঞ্জ সাব – রেজিষ্ট্রিঅফিসে যান। সন্ধ্যায় তারা বাড়ি ফিরেন। এসময় হৃদয়ের মা ভেতর থেকে ঘরের দরজা জানালা বন্ধ অবস্থায় দেখতে পেয়ে তিনি ডাকাডাকি করেও হৃদয়ের কোন সাড়া শব্দ পান নি। তবে ঘরের ভেতর উচ্চ শব্দে মিউজিক বাজতেছিলো।
একপর্যায়ে প্রতিবেশীরা এসে ঘরের ভিতরে ইভানা ও হৃদয়ের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে। ইভানার মরদেহের ওপর ছুরি হাতে হৃদয়ের মরদেহ পড়ে ছিলো। নিহত ইভানার গলায়, ঘাড়ে ও গালে এবং হৃদয়ের পেটে ছুরিকাঘাতের একাধিক চিহ্ন রয়েছে।

পারিপার্শ্বিক অবস্থা দেখে ধারণা করা হচ্ছে, বাড়ির লোকজনের অনুপস্থিতির সুযোগে প্রেমিকা ইভানাকে ঘরে ডেকে এনে তাকে গলা কেটে ও এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতে হত্যা করে হৃদয়। পরে নিজেই নিজের পেটে ছুরিকাঘাত করে আত্মহত্যা করে সে। বাহিরের লোকজন যাতে কোনো শব্দ শুনতে না পায় সেজন্য ঘরের দরজা জানালা বন্ধ করে জোরে গান ছাড়া ছিলো।
এ ব্যাপারে আইনি ব্যবস্থাগ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরশহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরো সংবাদ