আজ ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দাগনভূঞায় ঝাঁরফুকে বাঁধা দেয়ায় ডাক্তার ও কর্মচারীদের উপর হামলা! গ্রেফতার ৩।

দাগনভূঞা প্রতিনিধি:

ফেনীর দাগনভূঞা সরকারি হাসপাতালে রোগীর স্বজনদের হামলায় ডাক্তার সাখায়াত সহ আহত ৪ জন। এঘটনায় ৩ জনকে আটক করেছেন পুলিশ।১১ সেপ্টেম্বর শনিবার বেলা ২: ৩০ মিনিটে প্রসূতি রোগী বিবি সকিনা বেগম বয়স (১৯ ) কে চিকিৎসার জন্য কর্তব্যরত ডাক্তার অপারেশন থিয়েটার রুমে পাশের তার সিটে যান, তখন রোগী বিবি সকিনা ঝাঁকুনি ও এলোমেলো কথা বলার কারনে ডাক্তার স্বজনদের জানান, রোগীর চিকিৎসার খুবই প্রয়োজন আপনারা রোগীর সিটের বাহিরে যান।আজ সকাল ১১ টায় এই হাসপাতালে পুত্র সন্তানের জম্ম হয়। তখন রোগীর ভাই হাফেজ বেলাল হোসেন (৪৫) ও মাওলানা ইকবাল হোসেন ঝাঁরফুক নিয়ে ব্যস্ত থাকার মাঝে ডাক্তারকে বলছেন এটা আপনার কাজ নয়, ঝাঁরফুকের কাজ তখন ডাক্তার একে অপরকে স্বরাতে গিয়ে হাতাহাতি হয়। শুরু হয় ডাক্তারের উপর রোগীর স্বজনদের ৬ জনের হামলা। হামলায় ডাক্তার সাখায়াত সহ নার্স রিয়া, পুলি, ও রিয়াদ সহ আহত চারজন হয়। আহতদের মধ্যে ডাক্তার সাখাওয়াতের অবস্থা আশংকাজনক।খবর পেয়ে দাগনভূঞা থানার ওসি তদন্ত প্রার্থ পাল, এএস আই নাজমুল হক ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রুগির ভাই মাওলানা বেলাল হোসেন, ইকবাল ও বিবি সকিনার স্বামী রাজুকে গ্রেফতার করেন। এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা রুবায়েদ বীন করিম জানান, রোগীদের সুচিকিৎসা দেওয়ার জন্য দাগনভূঞা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তার সাখায়াত যেমন জনগণকে সুচিকিৎসা সেবা দিয়ে হাসপাতালের সুনাম অক্ষুন্ন রাখেন। তিনি আরও বলেন ডাক্তার সাখায়াতের উপর হামলা বর্দাস্ত করা হবে না, এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরো সংবাদ