আজ ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কাপাসিয়ায় ৭ বছরের শিশু ধর্ষণ! ক্ষতিপূরণ দেড় লাখ টাকা প্রদানের পর ফেরত!

মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, গাজীপুরঃ

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। পাশবিক নির্যাতনের শিকার ওই শিশুর পরিবারকে চিকিৎসা ও ক্ষতিপূরণ বাবদ ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা প্রদানের পর শালিশিয়ানরা ওই টাকাও পূনরায় ফেরত নিয়ে নেয়।

শিশুকে ধর্ষণের অভিযােগে তাঁর পিতা গত ২৯ আগস্ট রােববার রাতে কাপাসিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযােগ করেন।
ধর্ষক প্রভাবশালী হওয়ায় ঘটনা প্রকাশ পেলে শিশু ও তার পিতাকে প্রাণ নাশের হুমকি দেওয়ায় প্রায় আড়াই মাস যাবৎ গােপন চিকিৎসা করার পরও শিশুটি সুস্থ হয়নি।

অভিযােগ সুত্রে জানাযায়, উপজেলার সিংহশ্রী ইউনিয়নের পশ্চিম বড়িবাড়ি গ্রামের ওই শিশু গত জুন মাসের ১৭ তারিখ দুপুরের দিকে বাড়ির পাশে আম কুড়াতে যায়। এ সময় একই এলাকার আবুল হােসেনের ছেলে তিতাস (১৬) তার কাছে গিয়ে একটি চাকু বের করে ভয় দেখিয়ে পাশের জঙ্গলে নিয়ে যায় এবং হাত পা বেধে ধর্ষণ করে এবং এ ঘটনা প্রকাশ করলে ওই শিশু ও তার পিতাকে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়।

পরে শিশুটি রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়ি ফিরে যায় এবং রাতের বেলা তার মা গার্মেন্টস থেকে বাড়ি ফিরে মেয়েকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় দেখতে পেয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে সব খুলে বলে।

পরে স্থানীয় ডাক্তারের কাছ থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ না হওয়ায় গত ২২ আগস্ট কাপাসিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহম্মেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন।
বিষয়টি স্থানীয়পর্যায় জানাজানি হলে তিতাস ও তার পরিবারের লােকজন ওই শিশুর বাড়িঘর বাঁশ দিয় বেড়া দিয়ে আটকে রাখে। পরে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সহায়তায় বেড়া সরিয়ে নেয়া হয় এবং শিশুর পরিবারকে চিকিৎসা ও ক্ষতিপূরণ বাবদ ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা দেওয়া হয় এবং ১০০ টাকার চারটি খালি স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেওয়া হয়।
কি রহস্যজনক কারণে একদিন পর শালিশিয়ান কাঠ ব্যাবসায়ী শাহজাহান ও মোস্তফা কামাল,আবুল হোসেন, ওয়াজ কুরুনী ও স্থানীয় ইউপি সদস্য ওই স্ট্যাম্প ও ক্ষতিপূরণের পুরো টাকা ফেরত নিয়ে নেয়।

এ বিষয়ে শালিশিয়ান শাহজাহান জানান, তিনি এ বিষয়ে কিছুই জানেন না এবং পূর্ব শত্রুতার জেরে তার নাম উল্লেখ করে থানায় অভিযােগ করা হয়েছে।

কাপাসিয়া থানার ওসি মোঃ আলম চাঁদ জানান, এ বিষয়ে তিনি একটি লিখিত অভিযােগ পেয়েছেন এবং বিষয়টি তদন্তের জন্য পরিদর্শক তদন্ত মোঃ মনিরুজ্জামানকে ঘটনাস্থলে পাঠানাে হয়েছে। ঘটনার সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরো সংবাদ