আজ ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২রা মার্চ, ২০২১ ইং

ফেব্রুয়ারি মাসে ফুলের বাণিজ্য

রোমান শিকদার, শিবচর উপজেলা প্রতিনিধি:

ফুল নিয়ে জানা-অজানা অনেক কাহিনী প্রচলিত আছে। আবার ফুল যে কত অমূল্য তা বোঝার জন্য প্রভাত কুমার মুখোপাধ্যায়ের বিখ্যাত সেই ফুলের মূল্য ছোটগল্প অনেকেই পড়ে থাকবেন। আবার ফুলের গুরুত্ব । বাংলাদশে ফেব্রুয়ারি মাসে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানের জন্য ফুল একটি অপরিহার্য অনুষঙ্গ দেখা দেয়।

ফেব্রুয়ারির সেই অনুষ্ঠানগুলো হলো ১৩ ফেব্রুয়ারিতে ১ ফাগুনে বসন্তবরণ, আবার একই দিনে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের জন্য বিদ্যার দেবী-খ্যাত সরস্বতী পূজা উদযাপন। তার একদিন পরেই অর্থাৎ ১৪ ফেব্রুয়ারিতে উদযাপিত হয় ভ্যালেনটাইনস ডে অর্থাৎ বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। আবার একুশে ফেব্রুয়ারিতে

(৮ ফাল্গুন) পালিত হয় ভাষাশহীদ দিবস যা এখন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। প্রতিটি দিবস পালনের জন্য অন্যতম অনুষঙ্গীয় উপাদান হলো ফুল। ফুল ছাড়া এখন এসব অনুষ্ঠান উদযাপন করার কোনো অর্থই হয় না। তা ছাড়া ফেব্রুয়ারি মাসটি ভাষার মাস হওয়ার কারণে

সে জন্য ভাষার মাসকে ঘিরে সারা মাসেই কোথাও না কোথাও কোনো না কোনো অনুষ্ঠানাদি লেগেই থাকে। যেমন কোনো স্থানে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানসহ অন্যান্য সামাজিক কর্মকাণ্ড, অফিসে বিদায় ও শুভেচ্ছার অনুষ্ঠান, নবীনবরণ, রাজনৈতিক মঞ্চ সেসব প্রতিটি অনুষ্ঠানের জন্য প্রচুর ফুলের প্রয়োজন হয়। সেই প্রয়োজনকে সামনে নিয়েই সারা বছরের তুলনায় এ সময় ফুলের ব্যবসা-বাণিজ্যের একটি বিরাট অংশ সংঘটিত হয়ে থাকে। সারা বছরই কোনো না কোনো

ফুল উৎপাদন হয়ে থাকে। রজনীগন্ধা, গোলাপ, জারবেরা, গাঁদা, গ্লাডিওলাস, জিপসি, রডস্টিক, কেলেনডোলা, চন্দ্রমল্লিকাসহ প্রায় ১১ ধরনের ফুল এ সময়ে সারা দেশের মানুষের ভালোবাসার মন জোগাচ্ছে। এসব ফুল সারা দেশেই কমবেশি উৎপন্ন হয়ে থাকে। ফুলপ্রেমীদের কাছে প্রতিনিয়তই ফুলের কদর বাড়ছে, সে জন্য এর চাহিদা দিনদিন বাড়তে থাকবে এতে কোনো সন্দেহ নেই।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরো সংবাদ