আজ ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জুন, ২০২১ ইং

ঝালকাঠি আদালত চত্বরে আসামী, ভিকটিম ও উভয়পক্ষের আইনজীবীদের উপস্থিতিতে ৫ লাখ টাকা দেনমোহরে বিবাহ সম্পন্ন।

সৈয়দ রুবেল, ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধিঃ

ঝালকাঠিতে অপহরণ ও ধর্ষণ মামলার আসামির সাথে ভিকটিমের বিয়ের শর্তে ধর্ষকের জামিন মঞ্জুর করেছেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. শহিদুল্লাহ।

 

১৭/০১/২০২১ইং তারিখ রোববার জামিন শুনানীর নির্ধারিত তারিখের দিনে আদালতে বাদী এবং আসামী উপস্থিতিতে জেলা ও দায়রা জজ মো. শহিদুল্লাহ বরপক্ষের অনুরোধে উভয় পক্ষকে বিয়ের শর্তে স্থায়ী জামিনের প্রস্তাব দেন।

প্রস্তাবে উভয় পক্ষ রাজি হলে জেলা ও দায়রা জজ মো. শহিদুল্লাহর নির্দেশে আদালত চত্বরে বসেই আসামী, ভিকটিম ও উভয়পক্ষের আইনজীবীদের উপস্থিতিতে ৫ লাখ টাকা দেনমোহরে বিবাহ সম্পন্ন করা হয়।

রোববার দুপুরে দুইপক্ষের উপস্থিতে বিয়ে পড়ান কাজী মাওলানা মোঃ সৈয়দ বশির।

জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এবং বাদী পক্ষের মামলা পরিচালনাকারী অ্যাডভোকেট আব্দুল মান্নান রসুল ও আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনাকারী অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন কবীর এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এ বিয়ের বর হলেন সদর উপজেলার বৈদারাপুর গ্রামের মহিদুল ইসলাম আর কনে চরভাটারাকান্দা গ্রামের আয়শা আক্তার।

আসামী বর মহিদুলের জামিন মঞ্জুর করেন বিচারক মো. শহিদুল্লাহ।

পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল মান্নান রসুল জানান, তিন বছর পূর্বে ঝালকাঠি সদর উপজেলার চরভাটারাকান্দা গ্রামের আয়শা আক্তারকে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে ভিকটিমের মা লাকি বেগম বাদী হয়ে একটি নালিশী মামলা দায়ের করে। মামলা দায়েরের পর থেকে আসামি পলাতক ছিলো।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরো সংবাদ