আজ ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

চাকুরির নামে বেকারদের নিয়ে তামাশা।

সুজন মির্জা :

আপনি কি চাকুরি খুজছেন!!!

তবে কিছু তথ্য আপনাদের দিয়ে রাখি….

১) সাভার…আশুলিয়া….বাইপেল, গাজীপুর চৌরাস্তা, ইউনিক বাসস্ট্যান্ড এই সব address যাঁরা দিবে ভূলেও তারা এই সব জায়গায় যাবেন না। এছাড়া বিভিণ্ণ এলাকায় ১২০০০-২০০০০ টাকা বেতনের job সার্কুলার দেয়। এনারা বিভিন্ন ফেক আইডি থেকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন। এবং বলেন কোনো জামানত লাগবে না। আপনি ভরসা করে যাবেন তখন আপনার কাছে ৩৫০০ টাকা চাওয়া হবে। আর আপনাকে বলা হবে এটা আপনার unifrom আর খাবারের জন্য ৫০% advance চাওয়া হচ্ছে। আপনার কাছে টাকা না থাকলে ওনারা বলবেন সমস্যা নাই- আমি দিয়ে দিচ্ছি (আলগা পিরিত)। আপনার কাছে যা আছে তাই দিয়ে ফরম টা পূরন করেন। আপনি ২০০-৩০০ টাকা দিয়ে ফরম পূরন করবেন। ওটা ওরা সাথে সাথেই গিলে ফেলবে। এবার আপনাকে বলা হবে আপনি বাকি টাকা কারো কাছ থেকে manage করে নিয়ে আসেন। ওখানে বসেই আপনার ব্রেন ওয়াশ হয়ে যাবে। এবার আপনি হয়তো কারো কাছে ফোন করবেন টাকার জন্য….সে হয়তো আপনাকে বলবে ভাই চলে আয় এগুলো ভুয়া হয়। এবার আপনি তাদের বলবেন ভাই আমি জব করবো না। আমার ৩০০ টাকা back দেন। এবার ওনারা বলবে ওটা তো ফেরত হবে না…ওটা ফরম পূরণের জন্য।

👉মনে রাখবেন job এর জন্য কোনো টাকা লাগে না।

২) অনলাইনে job…প্রতিদিন ৩০০-৪০০ ইনকাম। কাজ শিখতে পারবেন ৫ মিনিটে। add fee নাই কিন্তু ফরম পূরন করতে ২০০ টাকা লাগবে। dont forget it যেটা সহজেই হয় তা কখনো স্থায়ী হয়না।

৩) কখনোই কোথাও টাকা দিবেন তোহ ফেঁসে যাবেন।

৪) এনাদের লোক নেয়া কখনো শেষ হয়না তবুও ঢাকা শহরে এতো বেকার। এনারা সবসময় ফেক আইডি ব্যবহার করতে স্বচ্ছন্দবোধ করেন।

৫) ভুলেও যদি এমন কোনো অফিসে টাকা ছাড়া জয়েন করতে পারেন তবুও প্রথম দিন অফিসে গিয়েই চারদিক লক্ষ রাখবেন যে ওনারা আরো লোক নিচ্ছেন কিনা…. বা আপনাকে যদি বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে লোক মেনেজ করতে বলে তবে বুঝে নেবেন এরা মানুষ নিচ্ছে টাকার জন্য।এদের লোক নেয়া বন্ধই হয়না।

৬) ইন্সুরেন্স কোম্পানি গুলো তে ভূলে ও ঢুকবেন না। কারন এরা ১২০০০-১৫০০০ টাকা সেলারি দিয়ে আপনাকে নিয়ে প্রথমে আপনাকে দিয়েই একটা ইন্সুরেন্স করিয়ে নিবে। আর ১৫ দিন সময় দিবে আপনাকে আরো ৪/৫ টা ইন্সুরেন্স খোলার টার্গেট দিবে। না পারলে আপনার জব শেষ। মাঝখান থেকে আপনার ১৫ দিনের যাতায়াত এর টাকার বাঁশ তোহ খাবেন আরো ইন্সুরেন্স করার টাকা ও back পাবেননা। job দেবার নাম করে এনারা ইন্সুরেন্স করিয়ে নেন।

৭) বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্স, এয়ারপোর্ট…সিঙ্গার শো রুম….ওয়ালটন…এসব জায়গায় আপনার জব এর কথা বলা হবে কিন্তু আপনার interview হবে সাভার/আশুলিয়া/বাইপেল বাসস্ট্যান্ড এই এরিয়া তে। ভাই রে সব ভুয়া। কারন এসব জায়গায় লোক নেয় পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে বা পরিচিত লোকের মাধ্যমে।

৮) বেশির ভাগ জব গুলোতে বলা হয়ে থাকে….থাকা ফ্রি খাওয়ার সুব্যবস্থা। এতো সহজ ক্যামনে ভাই ক্যামনে। ওদের উদ্দেশ্য শুধু কোনো ভাবে একবার আপনাকে ওদের অফিসে নেয়া। বাকিটা ইতিহাস। মানে আপনার ব্রেন ওয়াশl। ভাইয়া/আপু যেখানে আসলেই আপনার জব হবে সেখানে তারা আপনার সংগে গল্প করে ব্রেন ওয়াশ করবেনা। আপনার সিভি (CV) দেখবে। কিছু প্রশ্ন করবে। তারপর জব হলে আপনাকে ২-৪দিন পর ফোন করে বলবে আগামী এতো তারিখ থেকে join করবেন।

যাঁরা চাকরী খোজে তারা নিজের খাওয়ার টাকা দিয়ে interview দিতে যাওয়ার ভাড়ার জোগান দেন। তার পরিবার হয়তো অনেক আশা নিয়ে বসে থাকে আমার ছেলে/মেয়ে interview দিতে গেছে আল্লাহ ওর চাকরী টা যেনো হয়ে যায়। হয়তো interview দিতে যাবার টাকা টা তার বাবা মা অনেক কষ্টে manage করে পাঠান। আর সেখানে কিছু লোক এসব বেকার ছেলে মেয়েদের অসহায়তার সুজোগ নিয়ে তাদের মন ভেঙ্গে দেয়।

তাই সবার কাছে অনুরোধ থাকবে কেউ এসব লোকের পাল্লায় পড়বেন না। আমি আমার স্বার্থে নয় আপনাদের সতর্কতার জন্যই বিষয় টা তুলে ধরলাম। বাকি টা আপনাদের ব্যাপার।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরো সংবাদ